ঢাকা, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭  ,
২০:৪০:৫৬ জুন  ২১, ২০১৭ - বিভাগ: চট্টগ্রাম


উখিয়ায় ঈদের কেনাকাটায় ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়

Image

মোসলেহ উদ্দিন, উখিয়া (কক্সবাজার)

পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে এখন কক্সবাজারের উখিয়ায় মার্কেট, শপিংমল ও ফুটপাথের দোকানগুলোতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে ছেলেমেয়েদের আবদার রক্ষার্থে মা-বাবারা সাধ্যমতো কেনাকাটা করছেন। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ, বাহারি মার্কেটগুলোতে ক্রেতার চাহিদাকে কাজে লাগিয়ে গলাকাটা দাম আদায় করা হচ্ছে। সম্প্রতি উখিয়ার ব্যস্ততম শপিংমল একরাম মার্কেট, হাজি গুরা মিয়া মার্কেট, সালাম মার্কেট, বাবু মার্কেট, কোটবাজারের চৌধুরী মার্কেট, হাকিম ট্রেড সেন্টার, চৌধুরী টাওয়ার, এন. আলম মার্কেট, ফজল মার্কেট ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতা সাধারণের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিগত দিনের তুলনায় এ বছর ঈদ মৌসুমে ক্রেতাদের ভিড় লক্ষণীয়। তবে মার্কেটগুলোতে মধ্যবিত্ত ও নিু আয়ের পরিবারের লোকজন কেনাকাটা করতে দেখা গেছে। বাহারি রঙের ফ্রক, থ্রি-পিস, শার্ট, পাঞ্জাবি, ফতোয়া, জুতা-সেন্ডেলেসহ বিভিন্ন কোম্পানির তৈরি করা কসমেটিকস সামগ্রীর ফসলা সাজিয়ে রাখা হয়েছে মার্কেটের দোকানগুলোতে। মান যাচাইয়ের কোনো রকম সময় সুযোগের অপেক্ষা না করেই ক্রেতারা দরদাম করে কেনাকাটা করছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মার্কেটগুলোতে নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোর ক্রেতাসাধারণ তাদের মনের মতো পোশাক ক্রয়ের জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। বাবু মার্কেটের আনিসা স্টোর, রাখিবন্ধন, সাহেদা স্টোর, তিশা মনি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর ও অনুপমা স্টোরের মালিকের সাথে কথা বলে জানা যায়, এখানে নিু আয়ের বিভিন্ন শ্রেণির পেশার ক্রেতাসাধারণ ঈদের কেনাকাটা করছে। তারা জানান, যেভাবে ক্রেতাসাধারণ ভিড় করছে সেভাবে মালামাল বিক্রি হচ্ছে না। বেশির ভাগ ক্রেতা দরদাম করে চলে যাচ্ছে। আগামী শনিবার থেকে কেনাকাটা তুলনামূলকভাবে বেশি হতে পারে বলে ব্যবসায়ীরা আশা করছেন। বাবু মার্কেটের সাহেদা স্টোরের মালিক শাহ আলম জানায়, তার দোকানে মধ্য সাইজের একটি থ্রি-পিসের দাম নেওয়া হচ্ছে মাত্র আড়াই টাকা। তবে কিছু কিছু দোকানে একই থ্রি-পিস ৪/৫ হাজার টাকাও বিক্রি হতে দেখা গেছে। ফুটপাথের মার্কেটে কেনাকাটা করতে আসা বালুখালীর গৃহবধূ ফাতেমা বেগম জানায়, সে তার দু’বছর বয়সী একটি মেয়ের জন্য ফ্রক ও প্যান্ট ক্রয় করেছে মাত্র ১২০০ টাকায়। পালংখালী থেকে আসা ক্রেতা আয়েশা বেগম জানায়, নামিদামি মার্কেটের চাইতে ফুটপাথের মার্কেটের কাপড় ও অন্য মালামালের দাম তুলনামূলকভাবে অনেক কম।


চট্টগ্রাম'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি