ঢাকা, শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭  ,
২০:৩৭:১০ জুন  ২১, ২০১৭ - বিভাগ: চট্টগ্রাম


কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি
খাগড়াছড়ির বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

Image

রূপায়ন তালুকদার, খাগড়াছড়ি

খাগড়াছড়িতে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে নিুাঞ্চলসহ অনেক গ্রাম বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। গত সোমবার ভোর থেকে টানা বর্ষণে খাগড়াছড়ি জেলা সদরের মুসলিমপাড়া, গঞ্জপাড়া, মেহেদীবাগ, মিলনপুর, সাতভাইয়াপাড়া মুখ, খবং পুড়িয়া, শান্তিনগর, অপর্ণা চৌধুরী পাড়া, কালাডেবাসহ অনেকগুলো গ্রাম প্লাবিত হওযায় কয়েক হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন। গত মঙ্গল ও গতকাল বুধবার নতুন করে আরও নিু এরাকা প্লাবিত হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। পানিবন্দি মানুষ শিশু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মুসসিলমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ৩নং গোলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়সহ আÍীয়স্বজনের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। বন্যার পাশাপাশি টানা বর্ষণের ফলে খাগড়াছড়ি জেলা সদরসহ বিভিন্ন উপজেলায় পাহাড় ধসের শঙ্কা রয়েছে। পাহাড়ি ঢল নামতে শুরু করায় নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। খাগড়াছড়ি শহরের চেঙ্গী নদীর পানি বিপদ সীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় আশপাশের গ্রাম ও গ্রামীণ সড়ক পানির নিচে গেছে। খাগড়াছড়ি পরিবেশ রক্ষা আন্দোলনের সভাপতি প্রদীপ চৌধুরী বলেন, অতীতে কখনো খাগড়াছড়িতে একদিনের বৃষ্টিতে বন্যা হওয়ার নজির নেই। সম্প্রতি খাগড়াছড়ির বিভিন্ন খাল, ছড়া ও জলাশয় দখল হয়ে এবং অবাধে পাহাড় কাঠার কারণে কয়েক ঘন্টার বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতা ও বন্যা হচ্ছে। এর মাধ্যমে প্রকৃতি আমাদের সতর্ক সংকেত দিচ্ছে বড় ধরনের বিপর্যয়ের। দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এটিএম কাউছার হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিশ শরমীনসহ ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের একটি টিম বিকেলজুড়ে শহরের বন্যাপ্রবণ এলাকাসমূহ পরিদর্শন করেছেন। জেলা প্রশাসক মো. রাশেদুল ইসলাম জানান, বন্যাদুর্গত যারা বিভিন্ন বিদ্যালয়ে আশ্রয় নিয়েছেন তাদের শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানিসহ প্রয়োজনীয় ত্রাণ সরবরাহ করা হচ্ছে। বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় পাহাড় ধস ও বন্যার শঙ্কা থাকায় ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাসকারীদের সরিয়ে নিতে প্রশাসন কাজ করছে।


চট্টগ্রাম'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি