ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর ২০১৭  ,
০৯:৫২:৩০ জুন  ২১, ২০১৭ - বিভাগ: বিনোদন সময়


পিয়ার পছন্দ সাদামাটা সাজ-পোশাক

Image

বাংলাদেশে উৎসবের শেষ নেই। এর কোনোটার সঙ্গে জড়িয়ে আছে ধর্মীয় আবেগ। ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতিও জড়িয়ে আছে অনেক উৎসবের সঙ্গে। তবে সব উৎসবই আজকাল সর্বজনীন রূপ নেয়। সব দল, সব ধর, সব মতের মানুষকে একই মোহনায় নিয়ে আসে উৎসব-আয়োজন।

এমন দিনগুলোয় সাজে-পোশাকে-খাবারে থাকে বিশেষ রুচির ছাপ। বিনোদনেও থাকে বিশেষত্ব। নানা আয়োজন থাকে টিভিতে। হলে হলে মুক্তি পায় নতুন নতুন ছবি। তারকারা কিভাবে কাটান উৎসবের দিন, তারা কী পরেন, কী করেন, শৈশবে কী করতেন? জানিয়েছেন মডেল ও অভিনেত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়া।

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় ম্যাগাজিন ভোগের ২০১৬ সালে ভারতীয় সংস্করণের অক্টোবর সংখ্যায় ‘কাভার গার্ল’ হয়েছিলেন। তিনিই প্রথম কোনো বাংলাদেশি হিসেবে আন্তর্জাতিক মানের এই ফ্যাশন ম্যাগাজিনের মডেল হয়েছেন। ‘মিস ইন্ডিয়ান প্রিন্সেস ইন্টারন্যাশনাল’ খেতাবও জয় করেছেন তিনি। এ ছাড়া হেঁটেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার রেড কার্পেটে। মডেলিং ছাড়া তিনি অভিনয়ও করেন। অনুষ্ঠান উপস্থাপনার সঙ্গেও যুক্ত। পিয়া ২০০৭ সালে মিস বাংলাদেশ খেতাব অর্জন করেন।

জান্নাতুল ফেরদৌস পিয়ার ডাকনাম পিউ। লন্ডন কলেজ অব লিগ্যাল স্টাডিজে আইন বিভাগে অধ্যয়ন করছেন তিনি।

পিয়ার ছোটবেলার ঈদ পোশাককেন্দ্রিক থাকলেও এখন সারা বছরই পোশাক কেনা হয়। পোশাক কেনার চেয়ে উপহারই পান বেশি।
ঈদে কেমন পোশাক পরা হয় জানতে চাইলে পিয়া বলেন, ‘ছোটবেলায় ঈদের পোশাকে জাঁকজমক থাকত। এখন আরামদায়ক আর সাদামাটা সাজ-পোশাকেই থাকি। ছোটবেলায় পোশাকের পাশাপাশি ঈদে আরেকটা বিষয়ের প্রতি বাড়তি আগ্রহ ছিল। সালামি পাওয়া। তখন অল্প টাকাকেই অনেক বেশি মনে হতো। একবার ঈদে বেশ কয়েক হাজার টাকার সালামি পেয়ে ভীষণ আপ্লুত হয়েছিলাম। কিন্তু সেই হাজার টাকার থলেটি হারিয়ে যায়! সেই শোক বেশ কয়েক বছর ছিল। এই স্মৃতিটুকু উজ্জ্বল হয়ে আছে।’

বিনোদন সময়'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি