ঢাকা, শুক্রবার ১৮ আগস্ট ২০১৭  ,
২৩:১৭:১৩ জুন  ১৭, ২০১৭ - বিভাগ: শিক্ষা


অর্থনীতি
নবম ও দশম শ্রেণি

Image

সময়ের শিক্ষা ডেস্ক

সপ্তম অধ্যায় : অর্থ ও ব্যাংক ব্যবস্থা- অনুধাবনমূলক প্রশ্ন: ১। বাণিজ্যিক ব্যাংক কিভাবে অর্থ স্থানান্তর করে? উত্তর: গ্রাহকদের প্রয়োজনে বাণিজ্যিক ব্যাংক এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নিরাপদে ও দ্রুত অর্থ প্রেরণ করে। অর্থ প্রেরণের মাধ্যম হলো চেক, ব্যাংক ড্রাফট, পোস্টাল অর্ডার, ভ্রমণকারীর চেক, মেইল ট্রান্সফার, টেলিগ্রাম প্রভৃতি। ২। বাণিজ্যিক ব্যাংক কিভাবে সঞ্চয় বৃদ্ধিতে সহায়তা করে? উত্তর: বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে থাকা ক্ষুুদ্র সঞ্চয়কে আমানত হিসেবে সংগ্রহ করে। ব্যাংক সঞ্চিত অর্থ ব্যবসায় ও উৎপাদন ক্ষেত্রে ঋণ দিয়ে পুঁজি গঠনে সহায়তা করে। এভাবে বাণিজ্যিক ব্যাংক দেশের সঞ্চয় বৃদ্ধির পাশাপাশি অর্থনৈতিক উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করে।৩। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কী? কেন্দ্রীয় ব্যাংক হলো এমন একটি ব্যাংক, যা ব্যাংকিং ব্যবস্থার শীর্ষে অবস্থান করে সমগ্র ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে এবং মুদ্রাবাজারের অভিভাবক হিসেবে কাজ করে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক সরকারের মালিকানা ও নিয়ন্ত্রণে থেকে নোট ও মুদ্রা প্রচলন, ঋণ নিয়ন্ত্রণ, মুদ্রার মান সংরক্ষণ, মুদ্রাবাজার সংগঠন ও পরিচালনা এবং সরকারের আর্থিক উপদেষ্টা ও ব্যাংকার হিসেবে কাজ করে। এর প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো এটি সরকার কর্তৃক সর্বোচ্চ ক্ষমতাপ্রাপ্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠান। তাই এর প্রধান উদ্দেশ্য মুনাফা সর্বোচ্চকরণ নয়, বরং দেশের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা রক্ষা, উন্নয়ন ও জনকল্যাণ সর্বোচ্চকরণ। প্রতিটি স্বাধীন দেশেই একটি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক থাকে। যেমন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাংলাদেশ ব্যাংক, ভারতের রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেম, ইংল্যান্ডের ব্যাংক অব ইংল্যান্ড। ৪। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিভাবে নোট ও মুদ্রা প্রচলন করে? উত্তর: সব দেশে কেন্দ্রীয় ব্যাংকই নোট ও মুদ্রা প্রচলন করে। এ ব্যাংক দেশের প্রয়োজনের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নোট প্রচলন করে। অতীতে দেশে নোট প্রচলনের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংককে আইন অনুযায়ী স্বর্ণ, রৌপ্য বা বৈদেশিক মুদ্রা জমা রাখতে হতো। বর্তমানে দেশে অর্থের জোগান ও তার মূল্য নিয়ন্ত্রণ অনেকাংশে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নীতির ওপর নির্ভরশীল। ৫। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিভাবে সরকারের ব্যাংক হিসেবে কাজ করে? উত্তর: কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিভিন্ন খাত থেকে সরকারের রাজস্ব পাওনা, সরকারের হিসাব জমা এবং সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী বিভিন্ন খাতে অর্থ প্রদান করে। আর্থিক সংকটের সময় সরকারকে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি ঋণ প্রদান করে। সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযোগ রক্ষা করে। সরকারের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড, নীতিনির্ধারণে প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শ দিয়ে তা বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ৬। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিভাবে অন্যান্য ব্যাংকের ব্যাংক হিসেবে কাজ করে? উত্তর: কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশের নতুন ব্যাংক ও শাখা প্রতিষ্ঠানকে অনুমতি প্রদান করে। তার অধীনস্থ তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোকে সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য দিকনির্দেশনা ও পরামর্শ প্রদান করে। আইন বা প্রচলিত প্রথা অনুযায়ী তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোকে তাদের আমানতের একটি নির্দিষ্ট অংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকে গচ্ছিত রাখতে হয়। এ গচ্ছিত তহবিল থেকে প্রয়োজনে তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলো ঋণ গ্রহণ করতে পারে। আমাদের দেশের ব্যাংকিং আইন অনুযায়ী তালিকাভুক্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে তাদের চলতি ও স্থায়ী আমানতের ৫ শতাংশ ব্যাংকে জমা রাখতে হয়। ৭। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিভাবে ঋণ নিয়ন্ত্রণ করে? উত্তর: কোনো দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে ঋণের স্বল্পতা ও আধিক্য উভয়ই ক্ষতিকর। কেননা বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো যে ঋণ দেয় তা মোট অর্থের জোগানের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত হয়, যা দামস্তর এবং অর্থের মূল্যের ওপর প্রভাব বিস্তার করে। ঋণের আধিক্যের জন্য দেশে মুদ্রাস্ফীতি এবং ঋণের স্বল্পতার জন্য দেশে মুদ্রা সংকোচন যেন দেখা না দেয়, সে জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলোর ঋণদান ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন ব্যবস্থা প্রয়োগ করে। ৮। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিভাবে সর্বশেষ ঋণদাতা হিসেবে কাজ করে? উত্তর: কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তালিকাভুক্ত ব্যাংকগুলো কখনো আর্থিক সংকটের সম্মুখীন হয়ে অন্য কোনো উৎস থেকে ঋণ সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের শরণাপন্ন হয়। তখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক সংকটাপন্ন ব্যাংকগুলোর নির্দিষ্ট জামানতের বিপরীতে এবং বিভিন্ন ঋণপত্রের বিপরীতে ঋণ প্রদান করে। এ জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক অন্যান্য ব্যাংকের ঋণের শেষ আশ্রয়স্থল হিসেবে বিবেচিত হয়। ৯। কেন্দ্রীয় ব্যাংক কিভাবে বিনিময় হার নির্ধারণ ও নিয়ন্ত্রণ করে? উত্তর: বৈদেশিক লেনদেনের ভারসাম্য আনয়ন ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক দেশীয় মুদ্রার সাথে বিদেশি মুদ্রার বিনিময় হার নির্ধারণ ও নিয়ন্ত্রণ করে। যেমন টাকার বিপরীতে ডলার, ইউরো ইত্যাদির বিনিময় হার নির্ধারণ। ব্যবসায়-বাণিজ্যের সুবিধার জন্য এ ব্যাংক সরকারের পক্ষ থেকে বৈদেশিক মুদ্রা ও স্বর্ণ ক্রয়-বিক্রয় করে অর্থের বিনিময় হার স্থিতিশীল রাখে।


শিক্ষা 'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি