ঢাকা, শুক্রবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭  ,
০৯:২৮:০১ জুন  ১৬, ২০১৭ - বিভাগ: অর্থনীতি


চালের দামের চিত্র উল্টো,বাজারে হস্তক্ষেপ নেই

Image

বোরো মৌসুমে যেখানে চালের দাম কমে, সেখানে এবার উল্টো চিত্র। ধান কাটার আগেই বেড়ে যাওয়া দাম কমেনি এতটুকু। সবচেয়ে বেশি বেড়েছে মোটা চালের দাম। সেটা গত বছরের তুলনায় ৩১ শতাংশ। বাজারে কারসাজি চলছে-এমন অভিযোগের মধ্যেও হস্তক্ষেপ নেই সরকারের।


খাদ্য মন্ত্রণালয়ের একজন পদস্থ কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘চালের বাজারে যে সংকট চলছে তা কৃত্রিম। এটা এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা সৃষ্টি করেছে। পর্যাপ্ত চাল মজুদ আছে। চালের কোনো সংকট নেই।’

তবে যারা কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে না কেন মন্ত্রণালয়? এমন প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘মন্ত্রণালয় তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে গেলে হিতে বিপরীত হতে পারে, এই আশঙ্কায় মন্ত্রী কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। তিনি সরকারিভাবে চাল আমদানির উদ্যোগ নিচ্ছেন।’

চালের এই দাম বৃদ্ধি শুরু হয় হাওরে ফসলহানির মধ্য দিয়ে। সব মিলিয়ে সেখানে ছয় লাখ মেট্রিক টন ধান নষ্ট হয়েছে। তার পরও সার্বিক উৎপাদন হয়েছে এক কোটি ৯০ লাখ টনের মত। সরকারি হিসাবে এই পরিমাণ উৎপাদন হলে বাজারে প্রভাব পড়ার কথা না।

কিন্তু বাজারে প্রভাব পড়েছে এবং এ নিয়ে বিপাকে নিম্ন আয়ের মানুষ। রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ও কাওরান বাজার ঘুরে দেখা গেছে, মোটা স্বর্ণা চাল কেজি প্রতি ৪৫ থেকে ৪৭ টাকা টাকা, পারিজা ৪৫ থেকে ৪৮, মিনিকেট মানভেদে ৫২ থেকে ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। বেড়েছে অন্যান্য সব ধরনের চালের দামও।

আগে প্রভাব পড়বে না দাবি করলেও এখন চাল আমদানি করে পরিস্থিতি সামলানোর চেষ্টা করছে সরকার। খাদ্যমন্ত্রী ভিয়েতনাম সফর করে আসার পর দেশটি থেকে আড়াই লাখ টন চাল আনার বিষয়টি অনুমোদন করেছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত কমিটি। আরও বাকি দেড় লাখ টন আমদানি করা হবে আন্তর্জাতিক দরপত্রের মাধ্যমে।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বেলা ১২টার দিকে খাদ্যমন্ত্রীর দপ্তরে তার সাক্ষাৎ চাওয়া হলে তিনি জরুরি মিটিংয়ে আছেন বলে জানান তার জনসংযোগ কর্মকর্তা সুমন মেহেদী। বেলা দুইটায় মেলে তার সাক্ষাৎ পাওয়ার সুযোগ। কামরুল ইসলামের কাছে বিষয়টি নিয়ে জানতে বারবার অনুরোধ করা হলেও মুখ খুলেননি তিনি। এক পর্যায়ে তিনি এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশ না করে পাহাড় ধস নিয়ে লেখার পরামর্শ দেন। মন্ত্রী বলেন, ‘আমি আজ চাল নিয়ে আজকে কোনো কথা বলবো না। আপনারা রাঙামাটি নিয়ে নিউজ করুন।’  

অর্থনীতি'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি