ঢাকা, শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০১৭  ,
১০:২৮:৪৮ মে  ২৮, ২০১৭ - বিভাগ: ইসলাম


স্বাগত পবিত্র মাহে রমজান

Image

রবিবার থেকে শুরু হয়েছে পবিত্র মাহে রমজান। এই মাসটি মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত ফজিলতপূর্ণ। শনিবার এশার নামাজের পর থেকেই তারাবির জামাত শুরু হয়েছে। ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা শেষ রাতে সেহরি খেয়ে দিবাভাগে পানাহার বিরত থেকে সিয়াম পালন শুরু করেছেন।

ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের কাছে রমজান সংযম, আত্মশুদ্ধি এবং ত্যাগের মাস। রমজান রহমত (আল্লাহর অনুগ্রহ), মাগফেরাত (ক্ষমা) ও নাজাত (দোজখের আগুন থেকে মুক্তি)- এ তিন অংশে বিভক্ত। এ মাসে সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার, স্ত্রী-সহবাস ও যে কোন ধরণের পাপ কাজ থেকে বিরত থাকার মাধ্যমে রোজা পালন করেন মুসলমানরা।

এ মাসের শেষ অংশে রয়েছে হাজার মাসের এবাদতের চেয়েও উত্তম কদরের রাত। ইসলাম ধর্ম অনুযায়ী, এ মাসে প্রতিটি নেক আমলের সওয়াব আল্লাহ পাক ৭০ গুণ বাড়িয়ে দেন।

পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তার বাণীতে বলেন, ‘আমি আশা করি, সবাই রমজানের পবিত্রতা ও তাৎপর্য অনুধাবন করে ব্যক্তি ও সমাজজীবনে এর সঠিক প্রতিফলন ঘটাবেন এবং শান্তিপূর্ণ সমাজ গঠনে অবদান রাখবেন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেন, ‘আসুন, আমরা সকল প্রকার অকল্যাণ বর্জন করে শান্তি প্রতিষ্ঠায় পরস্পরকে সহযোগিতা করি। জীবনের সর্বস্তরে ধৈর্য ও সংযম প্রদর্শনের মাধ্যমে রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষা করি।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া তার বাণীতে পবিত্র রমজান মাসটির পবিত্রতা রক্ষার আহ্বান এবং দেশবাসী ও মুসলিম উম্মাহর প্রতি মোবারকবাদ জানিয়েছেন।


ইসলাম'র অন্যান্য খবর

©সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি